পাকিস্থানকে ফেলা হতে পারে কালো দেশের তালিকায়! ভারতের চাপে FATF এর বড়ো পদক্ষেপ।


0

ভারতবর্ষের শাসন ক্ষমতায় যেদিন থেকে মোদী সরকার এসেছে সেদিন থেকে একদিকে যেমন ভারতের সার্বিক উন্নয়ন হয়েছে তেমনই অন্যদিকে ভারতের শত্রুদেশ যেমন চীন, পাকিস্তান এইসকল দেশ গুলি বেশ চাপে পড়ে গিয়েছে। কারণ মোদী সরকার আসার পর সবদিক দিয়ে ভারত এতটাই শক্তিশালী হয়ে গিয়েছে যে এখন আর চীন বা পাকিস্তানের চোখ রাঙানি কে ভারতবর্ষ তোয়াক্কাও করে না। তাই চীন, পাকিস্তান এখন ভালোভাবেই বুঝে গিয়েছে যে আগের কংগ্রেসের শাসনকালে ভারত এবং মোদীর শাসন কালে ভারতের মধ্যে রয়েছে অনেক পার্থক্য।
জানিয়ে দি, পাকিস্থানের উপর ভারতের লাগাতার আন্তর্জাতিক চাপে সমস্থ বিদেশী ফান্ডিং বন্ধ হয়ে গিয়েছে। পাকিস্থান একটা ছোট দেশ, শুধুমাত্র বিদেশি ফান্ডিং এর জোরে এরা ভারতে জঙ্গি উৎপাত চালাতো।

কিন্তু এখন পাকিস্থান নিজের ইকোনমি চালাতে চালাতে ভিখারী হয়ে পড়েছে।পাকিস্তান কে জঙ্গীদের আতুরঘর বলা হয় কারণ এই পৃথিবীতে যত ধরনের জঙ্গী রয়েছে সেই সব জঙ্গীরাই আসছে মূলত পাকিস্তান থেকে। অর্থাৎ সব জঙ্গীগোষ্ঠীর প্রধান কাজকর্ম এই পাকিস্তানে বসেই কন্ট্রোল করা হয়। এমনকি নিজেদের কিছু স্বার্থের জন্য অর্থাৎ ভারত সহ কয়েকটি দেশের ক্ষতি করবার জন্য পাকিস্তান সরকার পর্যন্ত এইসকল জঙ্গীগোষ্ঠী গুলি কে সমর্থন করে। এমনকি পাকিস্তানে জঙ্গীগোষ্ঠী গুলি তাদের সমস্ত কার্যকলাপ সেখানে করতে পারে কিন্তু সরকার সবকিছু জেনেও তাদের কাজের বিরুদ্ধে কোনো পদক্ষেপ নেয় না।কিন্তু এমন করে আর বেশিদিন চলবে না পাকিস্তান সরকারের। এবার জঙ্গীগোষ্ঠী গুলির বিরুদ্ধে বড় কোনো পদক্ষেপ নিতেই হবে নাহলে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে এবার বড় পদক্ষেপ নেবে এফটিএফ।

কারণ এবার এফএটিএফ তাদের সিদ্ধান্তে জানিয়েছেন যে, আগামী বছরের জানুয়ারি মাসের শেষের মধ্যে যদি পাকিস্তান তাদের দেশ থেকে সমস্তরকম সন্ত্রাসমুক্ত না করে তাহলে তাদের কে কালো তালিকাভুক্ত দেশ গুলির সাথে যুক্ত করে দেওয়া হবে। আর এফএটিএফ এর এই সিদ্ধান্তের পরে পাকিস্তানের কপালে চিন্তার ভাঁজ পরে গিয়েছে। সেই জন্য পাকিস্তানের নিরাপত্তা মন্ত্রী আসাদ উমর জানিয়েছেন যে, শুধুমাত্র পাকিস্তানেই জঙ্গীগোষ্ঠী নেই। পাকিস্তানের বাইরেও অনেক দেশে রয়েছে বিভিন্ন জঙ্গীগোষ্ঠী।পাকিস্তানের তরফে রিপোর্ট দিয়ে জানানো হয়েছে যে, আমাদের এখনই কালো তালিকাভুক্ত করবেন না। আমরা জঙ্গীদের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নিচ্ছি। কিন্তু তাদের রিপোর্টের ভিত্তিতে এফএটিএফ পাকিস্তান কে প্রশ্ন করেছে যে কোথায় আপনারা পদক্ষেপ নিচ্ছেন? আমরা তো কিছুই দেখতে পাচ্ছি না। আপনারা প্রমান করুন।

বিশেষ সূত্রে জানা গিয়েছে যে, আগামী বছরের জানুয়ারি মাসেই এফএটিএফ এর প্রতিনিধি দল পাকিস্তান যাবেন এবং তাদের কাছে বিশেষ রিপোর্ট নেবেন। যদি রিপোর্টে সব কিছু ঠিকঠাক থাকে তাহলেই একমাত্র পাকিস্তানের রক্ষা। আর যদি রিপোর্টে কিছু গন্ডগোল থাকে তাহলে পাকিস্তান কে সরাসরি কালো তালিকাভুক্ত দেশের তালিকায় করে দেওয়া হবে।

#অগ্নিপুত্র


Like it? Share with your friends!

0
Krishna

0 Comments

Your email address will not be published. Required fields are marked *